ফরেক্স কি এবং ফরেক্স মার্কেট সম্পর্কে ধারণা

ফরেক্স কি এবং ফরেক্স মার্কেট সম্পর্কে ধারণা

Foreign- বৈদেশিক Exchange- বিনিময় এর সংক্ষিপ্তরূপ Forex  যখনই আমরা কোন কিছু অর্জন করতে চাই আমাদের বিনিময় করতে হয়। এই বিনিময় যখন দুটি দেশের মধ্য হয় তখনই তা হয় বৈদেশিক বিনিময়। দুটি দেশের মধ্যে অনেক পণ্যেরই বিনিময় হয় ফরেক্স এর ক্ষেত্রে আমরা মূলত দুই দেশের বানিজ্যের লক্ষ্যে যে মুদ্রার বিনিময় হয় তাই বুঝি। ফরেক্স মানে হল বৈদেশিক মুদ্রার বিনিময়। 


মুদ্রা বিনিময় একটি সদা চলমান প্রক্রিয়া, এর ছোট পরিসর হিসেবে আমরা বিবেচনা করতে পারি আমাদের দেশের মুদ্রা বিনিময় এর এক্সচেঞ্জগুলো যেখানে আমরা এক দেশ থেকে অন্য দেশে ভ্রমণ এর সময় যে দেশে যেতে চাই সেই দেশের মুদ্রা সংগ্রহ করি আমাদের দেশের মুদ্রার বিনিময় প্রতিষ্ঠান গুলুতে। 

কারেন্সি


প্রতিটি দেশের বা অঞ্চলেরই বিনিময়ের জন্য আলাদা আলাদা মুদ্রা রয়েছে। আমরা যখন আমাদের দেশ থেকে কোন পন্য ক্রয় না করে অন্য যে কোন দেশ থেকে ক্রয় করি তখন আমাদের ওই দেশে যে মুদ্রা প্রচলিত তা ক্রয় করতে হবে প্রথমে তারপর ওই দেশ থেকে পন্য ক্রয় করা যাবে। এই প্রক্রিয়াটি ভ্রমণ থেকে শুরু করে, শিক্ষা গ্রহণ, বানিজ্যর জন্যও আবশ্যক। এই এক মুদ্রা থেকে অন্য মুদ্রার যে বিনিময় এটিই বড় পরিসরে ফরেক্স বা বৈদেশিক মুদ্রার বিনিময় মার্কেট বলে। 


ফরেক্স মার্কেট সপ্তাহে ৫ দিন, ২৪ ঘন্টা চলমান থাকে, এই মার্কেট এ প্রতিদিন ৬.৬ ট্রিলিয়ন ডলার এরও অধিক ট্রেড সংঘটিত হয়। যা পৃথিবীর অন্যান্য যে কোন ট্রেডিং মার্কেট এর থেকে এতটাই বিশাল যে তুলনাই করা যায় না। উদাহরণ সরূপ পৃথিবীর সবচেয়ে বড় শেয়ার মার্কেট এর প্রতিদিনের ট্রেডিং ভলিয়ম মাত্র ২৬ বিলিয়ন ডলার, যা থেকে ফরেক্স মার্কেট এর আকার প্রায় ২৫০ গুন বড়, আশা করি ধারণা করতে পারছেন এর বিশালতা। 

ফরেক্স এর বিশালতা

এত বিশাল পরিমান ভলিয়মই এই মার্কেট কে করেছে পৃথিবীর সবচেয়ে আকর্ষণীয় ট্রেডিং মার্কেট, যে মার্কেট এ বড় বড় ফাইন্সিয়াল প্রতিষ্ঠান এর পাশাপাশি , দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক, হেজ ফান্ড ছাড়াও আমার, আপনার মতো অসংখ্য ব্যক্তিগত বা একক ট্রেডার। যেখানে সবারই উদ্দেশ্য একই কারেন্সি পেয়ার ( EUR/USD, USD/JPY) পরিবর্তন থেকে আয় করা। কিন্তু আয় শুধুমাত্র করতে পারেন তারাই যারা পর্যাপ্ত জ্ঞান অর্জন এ আগ্রহী, ধৈর্য ধারন করতে সক্ষম, এবং যা শিখে তা সঠিক ভাবে বাস্তবায়ন করতে সক্ষম। 


ফরেক্স ট্রেডিং কি?

  
গতানুগতিক ব্যবসা পদ্ধতিতে আমরা লাভ বলতে বুঝি যখন কোন পন্য তূলনামূলক কম মূল্য ক্রয় করে অধিক মূল্যে বিক্রয় করা, তাতে যে মুনাফা হয়, বা কম মূল্য বিক্রয় করলে লস হয় এই প্রক্রিয়াকেই আমরা ব্যবসা বলে জেনে আসছি। 


শেয়ার ব্যবসা সম্পর্কে ধারণা লাভ করি আমরা এর পর থেকে। যখন কোন ব্যবসায়ী তার ব্যবসা প্রসার এর লক্ষ্যে তার ব্যবসায়ের শেয়ার বিক্রি করতে চায়, সম্ভাবনাময় মনে হলে আমরা সেই ব্যবসায়ের শেয়ার ক্রয় করি। যদি ওই ব্যবসায়ীর ব্যবসায়ের প্রবৃদ্ধি হয় তখন আমাদের কাছে থাকা শেয়ার এর মূল্যও বৃদ্ধি পায় এবং আমরা এভাবেই কোন ব্যবসায়ে সরাসরি জড়িত না থেকেও প্রফিট করতে পারি। এটিই শেয়ার মার্কেট এর মূল ধারণা। 

কিন্তু ফরেক্স মার্কেট এর বিষয়টি এমন নয়,  এতে সরাসরি কোন পন্য ক্রয় বা বিক্রয় করা হয় না। বা কোন ব্যবসায়ের সাথেও জড়িতও হতে হয় না। তাহলে কিভাবে প্রফিট হয়? 


মূলত মুদ্রা বিনিময় প্রয়োজন হয় যখন আমরা এক মুদ্রা অঞ্চল থেকে অন্য মুদ্রা অঞ্চল থেকে কোন সেবা বা পন্যে ক্রয় বা বিক্রয় করি। যেমন যখন আমরা ভ্রমণ করি, কোন পন্য আমদানি করি বা রপ্তানি করি, কোন দেশের রিয়েল স্টেট এ বিনিয়োগ করতে চাই ইত্যাদি ভিবিন্ন কারনে। কিন্তু প্রতিদিন এই ট্রেডিং হওয়ার তুলনায় যে ভলিউম মার্কেট এ ট্রেড হয় তা অনেক কম। তাহলে এত বিশাল ভলিউম কেন হয়? 

ভ্রমন


এটি বুঝতে হলে প্রথমে লক্ষ্য করতে হবে মূদ্রা বিনিময়ে প্রফিট কিভাবে হয়। ধরুন আপনি ইউরোপ এর কোন দেশে ভ্রমণ করতে যাবেন যার ফলে টাকা দিয়ে ইউরো ক্রয় করলেন,ধরুন ১০০ ইউরো যা ক্রয় করেছেন ১০০ টাকা করে ১ ইউরো। 
আপনি ভ্রমণ শেষে আবার যখন দেশে ফিরে আসলেন তখনও আপনার কাছে ১০ ইউরো রয়ে গিয়েছে, আপনি এখন সেই ইউরোকে টাকায় পরিবর্তন করতে চাচ্ছেন, যেয়ে দেখলেন ১০০ টাকা অধিক পেয়েছেন যা দিয়ে আপনি কিনেছেন তার থেকে। কেমন লাগবে তখন?  খুবই ভালো তাই নয় কি, মনেও হতে পারে যদি ১০০ ই থাকতো তাহলেই তো ১০০০ টাকা প্রফিট হয়ে যেতো।


মুদ্রার রেট প্রতিনিয়ত পরিবর্তন হতে থাকে এই পরিবর্তন থেকে প্রফিট এর লক্ষ্যেই পৃথিবীর সকল খুচরা ট্রেডারগন , ব্যক্তিগত/ একক ট্রেডার গন ট্রেড এ অংশগ্রহণ করেন বা মার্কেট এ ট্রেড করেন। বড় বড় অর্থনৈতিক প্রতিষ্ঠানগুলোও এই লক্ষ্যে ট্রেড করেন, যা এই মার্কেট এর বিশাল ভলিয়ম এর মূল কারন।    


এভাবেই ফরেক্স মার্কেট এ ট্রেড হয় এক কারেন্সির সাথে অন্য কারেন্সির জোড় থাকে যেমন আমাদের উদাহরণ এ আমরা ইউরোর সাথে টাকাকে জোড় বলতে পারি। তেমনিভাবে EUR/USD, USD/JPY আরোও অনেক কারেন্সি পেয়ার।
ফরেক্স মার্কেট এ আমরা যে কোন কারেন্সি ক্রয় করতে পারি তবে এখানে একই সময়ে মুদ্রা জোড় এর অন্য আরেকটি কারেন্সি বিক্রয় হবে একইসাথে। 

ইউরো


১০০ ইউরো কিনে যদি ১০০০ টাকা প্রফিট হয় তাহলে ১০০০ ইউরো কিনে রাখলে আরও অনেক অধিক প্রফিট হতো তাই নয় কি?  কিন্তু এতো পূজি একজন ছোট বিনিয়োগকারীর জন্য জোগাড় করাও সহজ কথা নয়। এরই সমাধানে ফরেক্স মার্কেট এর ব্রোকারগুলো আমাদের মতো ব্যক্তিগত ট্রেডারদের জন্য চমৎকার একটি সুযোগ এর ব্যবস্থা করেছেন তা হলো লেভারেজ।  যাতে করে আপনি ১০০০ ডলার বিনিয়োগ করেও এর তুলনায় ১০ গুণ বা ২০ গুণ  বা তার চেয়েও অনেক অধিক পরিমান কারেন্সি আপনি ক্রয় বা বিক্রয় করতে পারবেন। 

ফরেক্স মার্কেট কোন কেন্দ্রীয় স্থান থেকে পরিচালিত  হয় না। সমস্ত লেনদেন বিশ্বব্যাপী ব্যবসায়ীদের মধ্যে কম্পিউটার নেটওয়ার্কের মাধ্যমে ঘটে, পৃথিবীর গুরুত্বপূর্ণ শহর গুলো লন্ডন, নিউ ইয়র্ক, টোকিও, জুরিখ, ফ্রাঙ্কফুর্ট, হংকং, সিঙ্গাপুর, প্যারিস এবং সিডনি তে কারেন্সি ট্রেড একের পর এক সময় ধরে চলতে থাকে, যার ফলে কখনোই ট্রেড বন্ধ থাকে না,যখন নিউইয়র্কে ট্রেডিং এর সময় ক্লোজ হয় তখনও সিডনিতে নতুন সেশন শুরু হয় তাই দিনের ২৪ ঘন্টাই ট্রেড চলমান থেকে এবং প্রচুর ভলিউমও থাকে।  পৃথিবীর গুরুত্বপূর্ণ শহর গুলোতে  সপ্তাহে ৫ দিন ২৪ ঘন্টা ওপেন থাকে এই মার্কেট।  


আমরা একসাথে “বিয়িং এ ট্রেডার” এবং আপনি সফল ট্রেডিং জুটি তৈরি করতে চাই। যাতে করে আমরা সফল ট্রেডিং ক্যরিয়ার গঠন করতে পারি।