নিকোলা টেসলা

চলুন ট্রেডিং এর গভীরতা সম্পর্কে জানার চেষ্টা করি

 “If you want to find the Secrets of the universe think in terms of energy,frequency and vibration” Nikola Tesla

“আপনি যদি এই মহাবিশ্বের গোপন, নিগূড় রহস্য বুঝতে চান তাহলে আপনাকে বুঝতে হবে, শক্তি, তরঙ্গ, এবং কম্পন সম্পর্কে” নিকোলা টেসলা  

যে কোন ক্ষেত্রেই সফলতার জন্য প্রথমে সেই সেক্টর সম্পর্কে স্পষ্টভাবে বুঝতে হবে। কারন ভালো ভাবে না বুঝতে পারলে কোন বিষয় অনুভব করতে পারা যাবে না, আর অনুভব না করলে তার যে,ভাষা রয়েছে, কম্পন রয়েছে তার সাথে জুড়তে পারা যাবে না বা মিশে যাওয়া যাবে না। আর এটা বলার অপেক্ষা রাখে না যে কোন কিছুর সাথে মিশে না যেতে পারলে তার থেকে সফলতা অর্জনও সম্ভব নয়। 

আপনি কারও সাথে সর্বোচ্চটুকু দিয়ে মিশতে চাইলে তাকে আপনার বুঝতে হবে প্রথমে, তারপর তার ভালো লাগা, মন্দ লাগা গুলোও জানতে হবে, তার কোন বিষয়গুলো আপনাকে মুগ্ধ করে, কোনগুলো কিছুটা অন্যরকম মনে হয় এই সকল বিষয়গুলো যখন অনুধাবন করা যায় তখনই তো তার যে অনুভুতিগুলো সেগুলোর সাথে মিশতে পারা যায়। আর এভাবে মিশে যেতে পারলেই না ভালো থাকা যায়। না হয় এমনও তো হয় যে সারাটাজীবন একসাথে থেকেও একজন মানুষ কে বুঝতেই পারা যায় না আর যাকে বুঝাই যায় না তার সাথে ভালো থাকা আশা করাটা বিলাসিতা নয় কি? 

যে কোন সম্পর্ক যদি শুধু লাভ, ক্ষতি বিবেচনা করে হয় তবে তার মধ্যে থাকা অপার্থিব আনন্দ কখনো লক্ষ্যই করা যায় না। উপলব্ধি তো তার পরের পর্যায়, এরও পর হচ্ছে তার কম্পন এর সাথে মিশে যাওয়া। অধিকাংশ সময়ই আমাদের কাজগুলো, সম্পর্কগুলো এমনই হয় যার ফলে ঐ কাজ, সম্পর্কগুলোর মূল এ অধিকাংশ সময়ই আমরা পৌছাতে পারিনা সফলতা তো বেশ পরের কথা।

তাই পৃথিবীর যে কোন ক্ষেত্রে সফল হতে গেলে অনেক জ্ঞানী হতে হবে তা মূল শর্ত নয়, অনেক স্মার্ট হতে হবে তাও নয়। যা করতে হবে তা হলো ওই বিষয়টা ভালভাবে উপলব্ধি করতে হবে, তার তরংগের সাথে মিশে যেতে হবে তবেই আসবে সফলতা। এই জন্যই অনেক সফলদের দেখে মনে হতেই পারে উনি কিভাবে এত উঁচুতে আরোহন করলেন, এত বিশাল সাম্রাজ্য কিভাবে গড়লেন? কিছু সময় উনার সাথে সময় দিলেই বুজবেন উনি ওই বিষয়ের সম্পর্কে এতোটা জেনেছেন যে তার সাথে মিশে গিয়েছেন আর এটিই তার সফলতার মূল কারণ। এমন অনেক ব্যবসায়ী আমাদের দেশে রয়েছেন যারা গতানুগতিক পদ্বতিতে শিক্ষিত না হয়েও তার কর্মে সফল,শারীরিক ত্রুটি থাকার পরও তা জয় করে সামনে এগিয়ে গিয়েছেন বহুদূর,সামাজিক প্রতিবন্ধকতাকে ছাড়িয়ে গিয়েছেন, যেখানে অনেকেই এমন রয়েছেন যারা যথেষ্ট শিক্ষিত, শারীরিকভাবেও চমৎকার,সামাজিক প্রতিবন্ধকতা না থাকার পরও পরাধীন হয়ে জীবন যাপন করতে হচ্ছে। এর রহস্য আজ উন্মুচিত, সফলতা অধিক জানার মধ্যে বা করার মধ্যে নয়, সফলতা যা করছি তাই ভালোভাবে রপ্ত করার নাম। যার জন্য তার সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন, সেই কাজকে বুঝা, অনুভব করা এবং তার সাথে মিশে যাওয়া প্রয়োজন।

ট্রেড এর ক্ষেত্রেও আমরা অধিকাংশ সময়ই শুধুমাত্র লাভ করার লক্ষ্য নিয়েই শুরু করি, যা নিয়ে সফল ট্রেডাররাও শুরু করেন, কিন্তু তারা শুধুমাত্র ট্রেডকে লাভ, লস এই ভিত্তিতে না দেখে ট্রেড কি, কেন, কিভাবে, কখন, কখন নয় ইত্যাদি আরও কিছু বিষয় জানে এবং বোঝার চেষ্টা করে। যতটা লাভ, লোকসান নিয়ে চিন্তা করে তার চেয়েও অনেক বেশি সময় কাটায় ট্রেড কে জানার জন্য, বুঝার জন্য, অনুভব এর জন্য, যখন অনুভব করতে পারে তখন একটা সময় ট্রেড এর যে তরংগ, কম্পন রয়েছে তার সাথে মিশে যায় এবং সফলতার পথে পা বাড়ায়। 

আমরা অনেক সময়ই শুনি যে সফল ব্যক্তিরা ভিন্ন কিছু করেন না, এছাড়াও শুনি যে সফল ব্যক্তিরা কিছুটা এগিয়ে থাকে অনেক বেশি নয়। এটাই তাদের এগিয়ে থাকার মূল মন্ত্র তারা যতটা সময় নেয় করতে তার চেয়ে অনেক বেশি সময় নেয় কিভাবে করবে সেই পথ উদঘাটন এ। তারা জানে যে ট্রেড মানেই লাভ লোকসান, ট্রেড মানেই দুই বা তারও বেশি পক্ষের সাথে বিনিময়। তাই তারা লাভ লোকসান এর চিন্তায় প্রাধান্য না দিয়ে ট্রেড এ মনোনিবেশ করে, ট্রেড এর খুটিনাটি বিষয়গুলোর উপর দক্ষতা অর্জনে সময় ব্যয় করে যখন হয়তোবা অপরিপক্ক, ট্রেড করতে ইচ্ছুক এমন ট্রেডার গন কিছু লাভ অর্জন করে বেশ বুক চিতিয়ে বসে আসে এই ভাব নিয়ে যে এতো বুঝার কি আছে ভাই, আমার এতসব দরকার নাই, লাভ করা দরকার তা তো করছিই। 

একটা সময় বিশাল এই মার্কেট এর তরঙ্গে রাইডিং না করে সেই তরঙ্গেই অদক্ষ্য নাভিক এর মত হেলতে দুলতে থাকে, এই সময় সে আরও নার্ভাস হয়ে যায়, কিছুই না বুঝতে পেরে সেই তরঙ্গের বিপরীতে চলতে থাকে যা তাদের ডুবে যাওয়াকে ত্বরান্বিত করে। এক সময় তারা মার্কেট কেই দুশতে থাকে ঐ অদক্ষ নাবিক এর মতো, যার মতে সমুদ্রে যাওয়াই যাবে না, এটি সবার জন্য নয়, ভয়ংকর জায়গা, এর থেকে দূরে থাকো এমন আরও অনেক জ্ঞানী কথা যা তাদের মূর্খতার বহিঃপ্রকাশ
সমুদ্রের তরঙ্গ

যা তাদের নানা রকম উত্তেজক মুহুর্তে নিয়ে যায় এবং তারা ট্রেড এর মধ্যে এক ধরনের আনন্দ অনুভব করে যখনই সময় পায় ট্রেড করতে চায়। ট্রেড তাদের জীবনকেও প্রভাবিত করতে থাকে, তাদের লাইফ পার্টনাররা অভিযোগ পর্যন্ত করতে থাকেন। যা তাদের ট্রেডিং সিদ্বান্তের উপর নেতিবাচক প্রভাব বিস্তার করতে থাকে এবং একটা সময় বিশাল এই মার্কেট এর তরঙ্গে রাইডিং না করে সেই তরঙ্গেই অদক্ষ্য নাভিক এর মত হেলতে দুলতে থাকে, এই সময় সে আরও নার্ভাস হয়ে যায়, কিছুই না বুঝতে পেরে সেই তরঙ্গের বিপরীতে চলতে থাকে যা তাদের ডুবে যাওয়াকে ত্বরান্বিত করে। এক সময় তারা মার্কেট কেই দুশতে থাকে ঐ অদক্ষ নাবিক এর মতো, যার মতে সমুদ্রে যাওয়াই যাবে না, এটি সবার জন্য নয়, ভয়ংকর জায়গা, এর থেকে দূরে থাকো এমন আরও অনেক জ্ঞানী কথা যা তাদের মূর্খতার বহিঃপ্রকাশ। অদক্ষ ট্রেডার যারা মার্কেটকে বুঝতে না পেরেই তার থেকে ধনী হওয়ার লক্ষ্যে ট্রেড করতে থাকে এবং শিখতে যেয়ে নাকসিটকায় তাদের জন্য একসময় ট্রেডিং হয় এক দুঃস্বপ্নের নাম, ভয় পায় তারা, মনে করে আমার যদি আরও কিছু পূঁজি থাকতো, এই সময় যদি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ঐ ঘটনা না ঘটতো, এমন আরও অনেক কথা যা তাদের অজ্ঞতার বহিঃপ্রকাশ।

এমনও ট্রেডার রয়েছেন যারা একবার তাদের অজ্ঞতার ফলে ফান্ড হারানোর পর আবারও পূঁজি বিনিয়োগ করে ওই জুয়াড়ীর মতো যে এক দানে হেরে গিয়ে পরের দানে আরও বড় ঝুঁকি নেয় যাতে করে তার পূর্বের লস সহ উঠিয়ে নেয়া যায়। যখন আবারও হারিয়ে ফেলে তখন আরও রেগে যায়, দেখে নিবো মার্কেট কতদূর যায় , এভাবে করে কিছু কিছু সময় তারা আয়ও করে যা তাদের মধ্যে আরও ভয়ঙ্কর ধারণার জন্ম দেয়, “আমি ভূল ছিলাম না শুধুমাত্র পুঁজির সংকটের ফলে এমন হয়েছিল, এখন থেকে আর হারাবো না” পরবর্তী সময় যখন মার্কেট তাদের বিপরীতে যেতে থাকে তারা তখন সেই বিশ্বাস এর উপর পূঁজি করে ধৈর্য ধারন করতে থাকে, কিছু কিছু সময় আরও পুজি বিনিয়োগ করে এই বিশ্বাস যে মার্কেট আবার তাদের পক্ষে আসবে, কিন্তু মার্কেট তাদের বিশ্বাস এ নয় তার নিয়মেই চলতে থাকে এবং একসময় সকল পূঁজিসহ তার একাউন্ট খালি হয়ে যায়। তবুও তারা শিখতে নারাজ থেকেই তাদের সম্ভাবনাময় ক্যরিয়ার থেকে চিরবিদায় নেয়।  

আর সফল ট্রেডাররা অল্প সংখ্যক ট্রেড করে থাকেন এবং ট্রেডকে পেশা হিসেবে বিবেচনা করেন সঠিক সময় অনুযায়ী ট্রেড শুরু এবং ট্রেড থেকে এক্সিট নেন। যার ফলে ট্রেড তাদের ব্যক্তিগত জীবনে তেমন কোন প্রভাবই ফেলে না। ট্রেড থেকে আয় করেন বা লোকসান করেন তা তাদের প্রতিদিনের মানসিকতায় তেমন কোন প্রভাবই ফেলে না। তারা তাদের ট্রেডিং এর ডায়েরি মেনটেইন করেন, যাতে তারা একটি ট্রেড কেন নিবেন, কখন নিবেন, কতটুকু রিস্ক এবং কতটুকু রিওয়ার্ড থাকবে তা লিপিবদ্ধ করেন। ট্রেড চলাকালীন সময়ে ধৈর্যসহকারে অপেক্ষা করতে থাকেন, ট্রেডকে সময় দেন তার লক্ষ্যে পৌঁছানোর জন্য। ট্রেড থেকে লাভ বা লোকসান যাই হোক তা নিয়ে সপ্তাহের শেষে পর্যালোচনা করেন, কোন পরিবর্তন এর প্রয়োজন হলে তা করেন না হলে তাতে অটল থাকেন। প্রতিনিয়ন ট্রেডিং সাইটগুলো ভিসিট করতে থাকেন, অন্যান্য সফল ট্রেডাররা কি করছে তা জানার চেষ্টা করেন, সফল ট্রেডারদের কোন কোর্স এ সুযোগ হলে ভর্তি হন। এভাবে করেই একজন সফল ট্রেডার তার ট্রেডিং এর সাথে মিশে যান যা তাদের ট্রেডিং ক্যরিয়ার এর সফলতার মূলমন্ত্র।

“Trade is a mind game, the professionals are here for earning money, and they are not going to give up anyway, so trade carefully” Being a Trader 

ট্রেড হচ্ছে মানসিক বিষয়, প্রফেশনালগণ ট্রেড করেন টাকা আয় করার লক্ষ্যে এবং তারা খুব সহজে ছাড় দেয়ার নয়, তাই ট্রেড করুন খুবই সাবধানে।